এএনএম নিউজ ডেস্ক: চীনের অনেক পণ্য, বিশেষ করে প্রযুক্তি পণ্য আমাদের দেশে খুবই সহজলভ্য। সেই সঙ্গে, চীনের অনেক খাবারও আসতে পারে অদূর ভবিষ্যতে। আবার, কখনো চীনে গেলে আপনারও তো অনেক খাবার খেতে হতে পারে। মনে রাখবেন, চীনের অনেক খাবার শরীরের জন্য খুবই বিপজ্জনক, যেগুলো ক্যানসারের মতো মারণব্যাধি সৃষ্টি করতে পারে। ডেভিডউলফ নামের একটি ওয়েবসাইটে পাওয়া গেল এমন আটটি খাবারের পরিচয়।

১। তেলাপিয়া মাছ
চীনে পানি দূষণ বিপজ্জনক মাত্রায় রয়েছে। আর এই মাছটি যেকোনো ধরনের বর্জ্য পদার্থ খেয়ে থাকে। ফলে এটি শরীরের জন্য খুবই ঝুঁকির।

২। কড মাছ
আমেরিকার ৫০ শতাংশ কড মাছ আমদানি করা হয় চীন থেকে। পানি দূষণের পরিপ্রেক্ষিত থেকেই তেলাপিয়ার মতো এই মাছটিও স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।

৩। আপেল জুস
জুস বানানোর আগে যদি আপেলটিই ক্ষতিকর কীটনাশক দিয়ে ভরপুর হয়ে থাকে, তাহলে তো সেটি স্বাস্থ্যের অবস্থা খারাপ করে দেবে। সুতরাং আর যাই হোক, চীনা আপেল জুস ভুলেও খাবেন না। চীনে আপেলে বিপজ্জ্নক কীটনাশক দেওয়ার ঘটনা নিয়মিত ঘটে।

৪। প্রস্তুতকৃত মাশরুম
চীনে মাশরুম প্রস্তুত করা হয় খুবই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে। কাজেই সাবধান!

৫। চীনা পেঁয়াজ
চীনের বেশির ভাগ ফসলেই বিপজ্জনক কীটনাশক প্রয়োগ করা হয়। পেঁয়াজের ক্ষেত্রেও একই অবস্থা। মিথাইল ব্রোমাইড নামের ক্ষতিকর একটি রাসায়নিক দ্রব্য অহরহই ব্যবহার হয় পেঁয়াজে।

৬। মুরগি
এভিয়ান ফ্লুর প্রাদুর্ভাব ঘটেছিল চীনা মুরগির ক্ষেত্রে। মাছের মতো এটিও বিপজ্জনক।

৭। প্লাস্টিকের চাল
আলু আর রেজিনের মিশ্রণে চীনের বাজারে তৈরি করা হয় এই বিপজ্জনক চাল। এটি যে শরীরের জন্য কতটা বিপজ্জনক তা বলার অপেক্ষা রাখে না। চাল কেনার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন, সাবধান থাকুন এই প্লাস্টিকের চাল থেকে।

৮। মটরশুঁটি
সোডিয়াম মেটাবাইসালফাইড, সয়াবিন এবং কেমিক্যাল দিয়ে বানানো মটরশুঁটিও মিলেছে চীনে। সুতরাং চীনা মটরশুঁটি থেকে সতর্ক থাকুন।