এএনএম নিউজ ডেস্ক: আমেরিকার টেক্সাসের মিডলওয়ে কাউন্টির ঘটনা। কোডি লি নামের এই ব্যাক্তির বেশ কয়েকদিন ধরেই পিঠে হচ্ছিল অসহ্য যন্ত্রনা। ডাক্তারের দারস্থও হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু কোনো কিছুতেই কিছু হচ্ছিল না। অবশেষে তাঁর স্ত্রী ওষুধের বাক্স থেকে একটি ওষুধ দিয়ে তাঁকে বলে সেটা পেইন কিলার। কিন্তু স্বামী সেই ওষুধ খেয়ে নেওয়ার পরেইন হয় বিপত্তি। কোডির স্ত্রী দেখেন রাতে স্বামী ঘুমিয়ে থাকার সময় তাঁর লিঙ্গ শক্ত হয়ে রয়েছে। সেটা দেখে তাঁর স্ত্রী কোডির সঙ্গে শারীরিক মিলনও করেন। কিন্তু তাতেও কোডি শান্ত হন না। মোট ৪ বার রাতে তারা শারীরিক মিলন ঘটান। তাতেও যখন স্বামী শান্ত হন না তখন তাঁর স্ত্রীর সন্দেহ হয়। তিনি ওষুধের বাক্সটা খুলে দেখেন। তারপরেই তার চক্ষু চড়ক গাছ। পেইন কিলার ভেবে তিনি স্বামীকে ভায়াগ্রা দিয়েছেন। এদিকে সেই ভায়াগ্রাটি বহু পুরনো। ফলে স্ত্রীর সন্দেহ হয় যে এটা হতে পারে এক্সপায়ার ডেট পেরনো। সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান স্বামীকে। তবে ডাক্তার জানায় ভয়ের কিছু নেই। ওষুধটি এক্সপায়ার হয়নি। ওষুধের এফেক্ট শেষ হলে তাঁর স্বামীর শক্ত লিঙ্গ ধীরে ধীরে নরম হয়ে যাবে।