এএনএম নিউজ ডেস্ক: কথায় বলে বিড়াল নাকি ভণ্ড তপস্বী। মাছ দেখলেই ধ্যান ভঙ্গ হয় তার। কিন্তু পুসু নামের বিড়ালটি সত্যিই ‘তপস্বী’। এমনকী মাছের লোভও টলাতে পারে না তার সংকল্প। বরং কঠোর নিরাপত্তারক্ষীর মতো মাছ পাহারা দেয় নির্লোভ পুসু। অবিশ্বাস্য মনে হতেই পারেন। হুলো বিড়াল পুসুকে দেখলেও এভাবেই বিস্মিত হন স্থানীয়রা। সামনে মাছ দেখেও দিনের পর দিন দূরে বসে কেবল নজরই রেখে চলে সে। তাকে স্বেচ্ছায় কেউ মাছ এগিয়ে না দিলে কখনওই সে তাতে মুখ দেয় না। সকলের আদরের পুসু প্রতিদিনই মাছের বাজারে এসে বসে। তবে মাছের থেকে খানিকটা দূরেই বসে সে। মাছ বিক্রেতার অনুপস্থিতিতেও কখনও জ্বলজ্বলে চোখ জোড়া নিয়ে এগিয়ে যায় না সেদিকে। শান্ত-নিরীহ স্বভাবের বিড়ালের মনে কোনও লোভ নেই। আক্ষরিক অর্থেই যেন সে ভাজা মাছটি উলটে খেতে জানে না।

গড়িয়াহাট গোলপার্ক হয়ে ফার্নরোড দিয়ে বালিগঞ্জ যেতে গেলে গলির ভেতরে আপনার চোখে পড়বে এমনই এক পুসু। প্রত্যেকদিন এক টুকরো মাছের লোভে পুসু মাছ পাহাড়া দেয়। তারপর দোকান বাজার সব শেষ হয়ে গেলে তবে তার কপালে জোটে একটু খানি মাছ।