ট্যুইটারে বৈশম্যমূলক আচরনের অভিযোগ, পার্লামেন্টে মুখোমুখি ভারতীয় ট্যুইটার ও সংসদীয় দলের প্রতিনিধিরা

0
2

এএনএম নিউজ ডেস্কঃ  রক্ষণশীলদের প্রতি ট্যুইটারে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হচ্ছে।  এমনই নানা বিষয়ে মতামত জানতে টুইটারের সিইও ও উচ্চ পদস্থ আধিকারিকদের আলোচনার জন্য ডেকে পাঠায় কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটি। ওই কমিটির প্রধান অনুরাগ ঠাকুর বলেছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় নাগরিকদের অধিকার রক্ষা করাটা সবচেয়ে আগে দরকার। বিশেষ কিছু মতাদর্শকে প্রাধান্য দিয়ে, বাকিদের দাবিয়ে রাখলে সেটা পক্ষপাত ছাড়া আর কিছুই নয়। এমনকী বেশ কিছু দক্ষীণপন্থী হ্যান্ডেল বা অ্যাকাউন্টকে ‘শ্যাডো-ব্যান’ (সম্পূর্ণ বা আংশিক ভাবে কোনও অ্যাকাউন্টকে ব্লক করে দেওয়া বা সেই অ্যাকাউন্ট থেকে হওয়া পোস্ট বা কমেন্ট মুছে দেওয়া) করার অভিযোগও এসেছে টুইটারের বিরুদ্ধে। সামাজিক মাধ্যম সবসময়ই জনগনের চিন্তাভাবনাকে প্রাধান্য দেয়। সেখানে নিরপেক্ষ মতামতটাই জরুরি। এই বিষয়ে আলোকপাত করার জন্যই টুইটারের সর্বময়কর্তাদের আলোচনার জন্য ডেকে পাঠানো হয় সোমবার। অনুরাগ ঠাকুরের নেতৃত্বাধীন সংসদীয় কমিটিতে ২১ জন লোকসভা ও ১০ জন রাজ্যসভার সাংসদ হাজির ছিলেন বলে জানা গিয়েছে।