এএনএম নিউজ ডেস্ক: হিটলার। তাঁকে ঘিরে কত মিথ আজও ঘুরপাক খাচ্ছে। জার্মানি, ইউরোপ থেকে শুরু করে এশিয়া, আমেরিকা। ভারতই বা ব্যতিক্রম হবে কীভাবে? জেনে নিন সেই ব্যক্তি সম্পর্কে অবাক করে দেওয়ার মতো কয়েকটি তথ্য।

১. হিটলারের জীবনের প্রথম প্রেম ছিলেন একজন ইহুদি তরুণী। ভাবতে পারেন, যে হিটলারের নামে কাঁপত দুনিয়া, সেই হিটলারই ভয়ের চোটে সেই তরুণীর সঙ্গে কথা বলতে পারেননি।

২. অ্যাডল্‌ফ হিটলার নামে যাঁকে চেনেন, তাঁকে অন্য নামে চেনার কথা ছিল। ‘হিটলার’ নয়, ‘শিক্‌লগ্রুবার’। তাঁর বাবা পরে দ্বিতীয় নামটি পাল্টে দেন। তবে নামে আর কী-ই বা আসে-যায়।

৩. হিটলারের গ্যাসের সমস্যা ছিল প্রবল। ২৮ রকমের ওষুধ খেতেন।

৪. আধুনিক যুগের ধূমপান-বিরোধী আন্দোলনের সূত্রপাতটা কার হাত ধরে হয়েছিল জানেন? হিটলার।

৫. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়ে একজন ব্রিটিশ সেনা এক জখম জার্মানকে প্রাণভিক্ষা দিয়েছিলেন। সেই জার্মানের নাম কী জানেন? অ্যাডল্‌ফ হিটলার।

৬. হিটলার ছিলেন নিরামিশাষী। পশুপ্রেমী হিসেবেও তাঁর সুখ্যাতি ছিল।

৭. মাত্র ৪ বছর বয়সেই জলে ঢুবে প্রায় মারা যাচ্ছিলেন হিটলার। এক ব্যক্তি কোনওক্রমে তাঁকে বাঁচান।

৮. ১৯৩৯ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য হিটলার মনোনীত হয়েছিলেন।

৯. কিশোর হিটলারের স্বপ্ন ছিল, বড় হয়ে সে একজন পাদ্রী হবে। ভাবা যায়!

১০. হিটলারের খাবারে স্ত্রী-হরমোন মিশিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন মার্কিন গুপ্তচরেরা। উদ্দেশ্য ছিল, হিটলারকে মহিলাদের মতো করে তোলা।

১১. হিটলার একটি জিনিসকে মারাত্মক ভয় পেতেন। শুনলে অবাক হবেন— বেড়াল। অ্যালেকজান্দার, নেপোলিয়ন এবং মুসোলিনি— সকলেই বেড়াল দেখে ভয় পেতেন।

১২. ১৯১৩ সালে ভিয়েনায় প্রায় একই এলাকায় একসঙ্গে কারা থাকতেন জানেন? বুক কেঁপে উঠবে— হিটলার, স্তালিন, ট্রটস্কি, টিটো এবং ফ্রয়েড। এমন ‘অক্ষশক্তি’কে কী বলবেন?

১৩. হিটলার মনে করতেন, তাঁর মতো হ্যান্ডসাম দুনিয়ায় আর কেউ নেই। তাই রাজনৈতিক ফায়দার জন্য অবিবাহিত ছিলেন।

১৪. হিটলারের শাসনকালে তাঁর আত্মজীবনী জার্মানির সব নবদম্পতিকে দেওয়া হত। উপহার হিসেবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here