এএনএম নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের জেরে নতুন করে বিপর্যয়ের দেশ হিসেবে চিহ্নিত হচ্ছে স্পেন। এরই মধ্যে চীনের মৃত্যুর সংখ্যা টপকে গেছে দেশটি। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে সে দেশে।

রাজধানী মাদ্রিদে সবচেয়ে বেশি প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। সেখানকার বৃদ্ধাশ্রম থেকেও কয়েক ডজন মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী যে ২১ হাজার মানুষ করোনায় মারা গেছে, তার মধ্যে প্রায় অর্ধেকই ইতালি আর স্পেনে। স্পেনের বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মানুষজন ঘরে বন্দি হয়ে আছে। তারা চরম আতঙ্কের মধ্যে দিন পার করছে। সামনের সপ্তাহে কী ঘটতে যাচ্ছে, সে ব্যাপারে তারা ভাবতে ভাবতে হতাশায় নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৭ হাজার রোগী মাদ্রিদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাদের মধ্যে ৩১৬৬ জন নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে রয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ইতালির পর ভয়াবহ পরিণতি হতে পারে যুক্তরাষ্ট্র ও স্পেনের। বিশেষজ্ঞদের একপক্ষ মনে করছেন, স্পেনের পরিস্থিতি যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে ভয়াবহ হতে পারে। তবে অন্যপক্ষ মনে করছেন, যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি বেশি খারাপ হতে পারে। তবে উভয়েই মনে করেন, চীন, ইতালির পরেই এই দুই দেশ ক্ষতির মধ্যে পড়বে।

তবে, এসবের মধ্যেও আশার কথা হলো- মাদ্রিদ হাসপাতালে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা দেওয়ার নানা রকম প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আরো ব্যাপক প্রস্তুতির চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here