বিয়ে করলেই সন্তান হবে, সঙ্গমের আবার কী দরকার? দম্পতির কথায় হতবাক নার্স

0
50

এএনএম নিউজ ডেস্ক: সমাজ অনেক দূর অগ্রসর হয়েছে। আজ সেক্স বা যৌনতা সম্পর্ক আজ কিশোর-কিশোরীরাও জানে। আর এমন পরিস্থিতিতে কিনা এক বিবাহিত দম্পতি সেক্সের ব্যাপারে কিছুই জানত না! এমনও হয়? অবাক কাণ্ড হলেও এমন ঘটনাই ঘটেছে এক ব্রিটিশ নার্সের সঙ্গে। তাঁর নাম রেচেল হারসন। তিনি জানিয়েছেন, একসময় তাঁর এমন এক দম্পতির সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছিল যারা জানতই না সন্তানের জন্ম দিতে হলে যৌনতা অবশ্যম্ভাবী।

ব্যাপারটা তাহলে খুলেই বলা যাক। রেচেল জানিয়েছেন, ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি নার্সের কাজ করছেন। সম্প্রতি তিনি ‘Handle With Care: Confessions of an NHS Health Visitor’ নামে একটি বই প্রকাশ করেছেন। বইটিতে, তিনি একজন স্বাস্থ্যকর্মী হিসাবে তাঁর দীর্ঘ কেরিয়ারের নানারকম উদ্ভট এবং হাস্যকর অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন।

সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি ওই বই থেকেই একটি অভিজ্ঞতার কথা বলেন। রেচেল জানান, একবার তাঁর এক অদ্ভুত দম্পতির সঙ্গে আলাপ হয়েছিল। তাঁদের বক্তব্য ছিল অনেক বছর হয়ে গিয়েছে তাঁদের বিয়ের। কিন্তু তাঁদের কোনও সন্তান হয়নি। স্বাভাবিকভাবেই তখন মেডিক্যাল টেস্টের কথা ওঠে। একজন চিকিৎসক তাঁদের যৌন সম্পর্কের কথা জিজ্ঞাসা করেন। তখনই এক আশ্চর্য তথ্য উদঘাটিত হয়।

যৌনতার কথা শুনে অবাক হয়ে যান ওই দম্পতি। তাঁদের ধারণা ছিল একজন পুরুষ আর একজন মহিলার বিয়ে হয়েই বুঝি সন্তান আপনাআপনি চলে আসে। এর জন্য যে ওই পুরুষ ও মহিলাকে শারীরিক সম্পর্কে যেতে হয়, তা নিয়ে কোনও ধারণাই তাঁদের ছিল না।

রেচেলের উপর দায়িত্ব বর্তায় ওই দম্পতিতে ‘সেক্স এডুকেশন’ দেওয়ার। অর্থাৎ, যৌনতা কী ও কেন, তা জানানোর। এক বিবাহিত দম্পতিতে এসব শেখানো সহজ কথা নয়। কিন্তু কাজ তো কাজই। তাই এই বেয়াড়া কাজের দায়িত্ব নিতেই হয় রেচেলকে। কয়েকবার তিনি ওই দম্পতির সঙ্গে দেখা করেছিলেন। আর তারপর? রেচেল জানান, ওই কয়েকবার ভিজিটের পর তো তাঁরা একে অপরের থেকে হাত সরাতেই পারতেন না।

আরোও পড়ুন:ছাত্রের সঙ্গে হোটেলে রাত্রিযাপন শিক্ষিকার! তারপর…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here